লিগামেন্ট ও টেন্ডন

সংবাদ প্রতিনিধি ১১:৩৬ মিঃ, মে ১৬, ২০১৯ Views : 520

লিগামেন্ট অস্থিসন্ধিকে দৃঢ় ও মজমুত করে । এটি এক প্রকার যোজক কলা যা এক অস্থি থেকে অপর অস্থিতে সংযোগ স্থাপন করে এবং অস্থিদ্বয়ের মাঝের সন্ধিকে সুদৃঢ় করে । অনেক সময় মাংসপেশীর সংকোচন-প্রসারন বা কুঞ্চনের ফলে লিগামেন্ট এ আঘাত লাগতে পারে । সাধারণত অ্যাথলেট ও খেলোয়ারদের এ সমস্যা বেশি দেখা যায় । লিগামেন্টের আঘাতে সেই স্থানে ব্যথা হয় চাপ প্রয়োগ বৃদ্ধি পায় । তাছারাও আক্রান্ত স্থান বা সন্ধি ফুলে যেতে পারে । আঘাতের পরিমাণ কম হলে এটি স্ধারণত দ্রুত ভালো হয়ে যায় তবে খুব বেশি আঘাতে লিগামেন্ট ছিঁড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে যা খুব মারাত্মক সমস্যা তৈরী করতে পারে । এ ধরনের সমস্যা সাধারণত পায়ের গোড়ালিতে বেশি হয়ে থাকে । তাছাড়া হাটু, উরু এমনকি কাঁধের সদ্ধিতেও হতে পারে । রক্ত সরবরাহ তুলনামুলক স্বল্প হওয়ায় লিগামেন্ট ছিঁড়ে গেলে তা জোড়া নাও লাগতে পারে । অনেক সময় অপারেশন এর প্রয়োজন হতে পারে । টেন্ডন হলো লিগামেন্টের মতই এক প্রকার যোজক কলা যা মাংসপেশিকে হাড়ের সাথে যুক্ত রাখে । লিগামেন্টের সাথে টেন্ডনের পার্থাক্য হলো লিগামেন্ট কোন মাংসপেশির সাথে যুক্ত থাকে না । মাংসপেশি সংকুচিত এবং প্রসারিত হয়ে আমাদের নড়ন সম্পুন্ন করে । কোন কারনে টেন্ড ক্ষতিগ্রস্ত হলে বা আঘাতপ্রাপ্ত হলে আক্রান্ত স্থানে নড়াচড়া বিঘ্নত হতে পারে । মানব দেহে সবচেয়ে শক্তিশালী টেন্ডন হল টেনডো-একিলিস যা পয়ের গোড়ালির পেছনে অবস্থিত । এটি পায়ের মাংসপেশিকে গোড়ালির হাড়ের সাথে যুক্ত করে । এই পেসির দ্বারা আমরা হাটাচলা করে থাকি । টেনডো-একিলিসছিঁড়ে গেলে হাঁটাচলা সম্ভব নয় । টেন্ডন ছাড়াও এপোনিউরোসিস  নামক একপ্রকার যোজক কলা মাংসপেশীকে হাড়ের সাথে যুক্ত করে । এটি টেন্ডনের মতো দৃঢ় নয় বরঞ্চ ঝিল্লীর মতো ছড়ানো এবং হাড়ের একটি বিস্তৃত অংশ যুক্ত থাকে । এটিও টেন্ডনের মতই কাজ করে । টেন্ড বা এপোনিউরোসিস সাধারনত মাংসপেশীকে দুইপাশ থেকেই হাড়ের সাথে সংযুক্ত করে । তবে কিছু বিশেষ ক্ষেত্রে একদিকে হাড়ের সাথে সংযুক্ত করে এবং অন্যদিকে ত্বকের নিচে অবস্থিত কলার সাথে যুক্ত করে । যেমন – আমাদের মুখমন্ডলের পেশি একদিকে হাড়ের সাথে যুক্ত এবং অন্যদিকে তা ত্বকের দিচের অংশে যুক্ত থাকে এবং এর জন্যই মুখমন্ডলে এতো বেশি ও নিঁখুত নড়াচড়া সম্ভব হয়েছে ।